প্রিয় পাঠক

# পরবর্তী JAN-FEB 2023 সংখ্যা প্রকাশিত হবে জানুয়ারির ১৫-২০ তারিখের মধ্যে # আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করার জন্য আপনাকে অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ # ঈশানকোণ নিয়মিত পড়ার জন্য আপনার প্রতি রইল আমাদের একান্ত অনুরোধ # ফেসবুকে আমাদের পেজ লাইক করুন, আমাদের ফলো করুন # আপনার লেখা আমাদের কাছে অমূল্য, লেখা পাঠান এই ঠিকানায়ঃ singhasada4@gmail.com # ঈশানকোণ-এর অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ Google Play Store-এ দেওয়া হচ্ছে # পরবর্তী JAN-FEB 2023 সংখ্যা প্রকাশিত হবে জানুয়ারির ১৫-২০ তারিখের মধ্যে।

নিরাময়ের ছায়াজগৎ – বিজয়া দেব

নিরাময়ের ছায়াজগৎ    (ছোটোগল্প) বিজয়া দেব আজকাল শুলেই ঘুম পায় আবার রাতে ঘুম আসে না। ঘুমের সাথে পর্যাপ্ত লড়াই চালিয়ে অন্তত বার পাঁচেক বাথরুম গিয়ে ও জল খেয়ে অতঃপর মধ্যরজনীতে ঘুম আসে তা-ও ঘুমের মাঝে চলে আসে জীবন ছেড়ে চলে যাওয়া ছায়ামানুষেরা। তাঁরা হাসিখুশি নন। গম্ভীর, চিন্তাক্লিষ্ট। ঘুম ভাঙার পর মনটা আরও ভারী হয়ে থাকে। নিরাময়ের বোন মাধুরীলতা। একটি মাত্র মেয়ে তার। আলোকলতা। নিরাময় বড্ড আদর করত। এক গভীররাতে সে হারিয়ে যায়। গিয়েছিল এক বন্ধুর দিদির বিয়েতে। সবাই ফিরে…

Read More

সুবিনয় দাশের কবিতা

কায়দা করে সুবিনয় দাশ প্রতিবেশী মিলেমিশে থাকো কায়দা করে শহর-শীর্ষে গুহায়, পঙ্গপাল লাফায় জঙ্গলে আপন খেয়ালে, আত্মতুষ্টি মেনে এঁকেবেঁকে গ্রাম, সবুজ পাতায় ভোজন ঝুড়িতে শ্রাবণমাস, মনসামঙ্গলের দোঁহার স্বাধীন বনবর্গী হাওয়া, মনোমত জ্যোৎস্না ঘন চিক্কুর, পুলক পালক ভিজে কাক শহর উধাও সুবিনয় দাশ শহর উধাও, শরণার্থী চুল্লিতে আগুন জলপান ভীষণ দরকার, উঁচুমতো চৌকাঠ ভেতরে বাহিরে ভিখারি, একরাত কাটাবে ছোঁয়ার সুযোগে, প্রতিষ্ঠার তীব্র ক্ষুধা গিমিক মশালে ঘামে, হাড়ে অনাদি অক্ষরে শুধু থাকা নয় বয়া ফাটে, কাবিল হাজতে লোকটি কবিতা পাঠে, সুষমা…

Read More

অজিতা চৌধুরীর কবিতা

উত্তর হেমন্ত অজিতা চৌধুরী হেমন্ত জড়িয়েছে দেহ ডাল পালা মাথা থেকে পা , আপাদমস্তক — ধূসর বিকেল বিদায় শেফালি ! পড়ন্ত রৌদ্র খেলায় বাজে সানাই। আজও অপেক্ষায়, শুকনো মালা চৈত্রের ঝরা পাতা —- এসেছিল নবীন মুকুল , বেগবতী বন্যা চলে গেল, একূল ভাসিয়ে পৃথিবী অজিতা চৌধুরী রোদ বৃষ্টি, আলো অন্ধকার ভালো, মন্দ — মানুষ ও পৃথিবীর ক্রমশঃ বিস্ময় — সূর্য ডুবেছিল, উঠেছিল চাঁদ শান্ত পৃথিবী সর্বংসহা ধরিত্রী মাতৃসমা যুগে যুগে বস্ত্রহরণ বজ্র, ত্রিশূল, খড়গ প্রতিঘাত, প্রতিশোধ নির্দয় আঘাত —…

Read More

রাশিয়া-ইউক্রেন সংঘর্ষ – সদানন্দ সিংহ

রাশিয়া-ইউক্রেন সংঘর্ষ সদানন্দ সিংহ রাশিয়া এবং ইউক্রেনের সংঘর্ষ আট মাস পেরিয়ে নয় মাসে পড়ল। কে প্রথম এই সংঘর্ষ শুরু করেছিল বা দোষ কা’র – এসব প্রশ্ন এখন গুরুত্বহীন। এখন দুটো প্রশ্ন সবার কাছে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়িয়েছে – এক) এই যুদ্ধ কখন থামবে ?  দুই) যদি না থামে তাহলে কী হবে ? এই যুদ্ধ কখন থামবে ? সত্যি বলতে কি এই প্রশ্নের উত্তর এখন আমাদের মতো সাধারণ লোকদের কারুর জানা নেই। কারণ এর পেছনে রয়েছে এক বিরাট জিও পলিটিক্স। ইউক্রেনের…

Read More

গোবেচারার বৃন্দাবন ভ্রমণ – সদানন্দ সিংহ

গোবেচারার বৃন্দাবন ভ্রমণ সদানন্দ সিংহ গিন্নি আগে অনেকবারই বলেছে বৃন্দাবনে বেড়াতে নিয়ে যাবার জন্যে, আমিই গা লাগাই নি। কারণ আমার স্বর্গমর্ত্য-পাপপুণ্য-ধর্মকর্ম জাতীয় কোনো কিছুতেই কোনোদিন বিশ্বাস ছিলনা, এখনও নেই। অন্যদিকে আমার গিন্নি একটু আস্তিক ধরনের। তাই এবার বেশ জোর করেই যখন আমাকে ধরল, এই এপ্রিল-মে মাসে তীব্র গরমের মাঝে বৃন্দাবনে যাবেই তখন না করার আর সাধ্য ছিলনা। যেহেতু গিন্নির কাছে প্রায় সব স্বামীই গোবেচারা। তাই ভাবলাম, বৃন্দাবনে যেতে কীসের আপত্তি, কতো মসজিদ-চার্চে বেড়াতে গেছি, বৃন্দাবনে কেনো বেড়াতে যাবো না?…

Read More

লিলিপুটদের গ্রাম মাখুনিক – সদানন্দ সিংহ

লিলিপুটদের গ্রাম মাখুনিক সদানন্দ সিংহ লিলিপুট এবং গালিভারের গল্প কে না জানে? ছোটবেলায় ভাবতাম লিলিপুটদের সত্যিই একটা দ্বীপ আছে। সেই লিলিপুটদের উচ্চতা ছিল ১৫ সেন্টিমিটারের একটু বেশি। সেগুলি ছিল জোনাথন সুইফটের লেখা কাল্পনিক কাহিনি। তবে আজ আমি যাদের কথা বলতে যাচ্ছি সেটা সত্যি এবং এই গ্রাম এখন একটা ট্যুরিস্ট স্পট হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই গ্রামের লোকদের গড় উচ্চতা একসময় ছিল ৫০ সেন্টিমিটার। এই গ্রামের নাম মাখুনিক। আফগানিস্থানের সীমান্তে ইরানে এই গ্রাম অবস্থিত। আফগানিস্থান সীমান্ত থেকে এই গ্রামের দূরত্ব ৭৫ কিলোমিটার।…

Read More

এ কোন স্রোত – শুভেশ চৌধুরী

এ কোন স্রোত শুভেশ চৌধুরী ভালো কথা বলতে পারবেন না। ভালো কথা বিকায় না। কিন্তু এমন দিন আসবে উন্নত দেশ গুলোর মতো ভালো কিছু পাবেন ভবিষ্যতবাণী। যে দেশদগুলোর সব কিছু আছে কিন্তু সব কিছু কলুষিত তাদের কলুষ মুক্ত হবে। অনুন্নত আধা উন্নত দেশগুলোর মানুষ যুদ্ধ করছে নিজেদের আত্মমর্যাদার জন্যো। কেননা কেউ ছোট ছিল না তাদের হৃত গৌরব ফিরে পাবার জন্য আজ চেষ্টা করে যাচ্ছে। পৃথিবীর অধিকাংশ দেশগুলো ঔপনিবেশিক শাসন এর প্রভাবে ছিল আজ তাহারা কেন যাহা সবকিছু ভালো তাহা…

Read More

শুভেশ চৌধুরীর কবিতা

শীর্ষক, নাই শুভেশ চৌধুরী নাই হলে পাওয়ার আগ্রহ প্রবল থাকে এই জন্য সবাই সচেষ্ট হয় বিমল-এর একটি ফুটবল চাই ফুটবলটা সে লাথি মারবে পায়ে রাখার চেষ্টা করবে গোল করে যদি খুব খুশি হবে দলকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। অনেক কিছুই তার নাই তবে আপাতত পেটে ভাত ও বলে লাথি মারা এইসব তার আকাঙ্ক্ষিত শীর্ষক, আছে শুভেশ চৌধুরী পরিতৃপ্তি লাভ নাই কুবেরের কথা মনে হয় তাল তাল ধন তাহার কাজে লাগে নাই তাহার পরিতৃপ্তি তিনি ধনকুবের নামযশ দিয়ে কি হবে যদি…

Read More

বলাই দের ছড়া

কাঁপছে জবর বলাই দে স্রোতের তোড়ে ভাঙছে মাটি বেনোজলের রমরমা, দিশেহারা দিগম্বর ভুলছে তাই দাঁড়ি কমা। বকছে প্রলাপ অহরহ বদ্যি কোথায় এমন ব্যামোর? নিত্য নতুন টোটকা চলে প্রয়োজন যে কড়া “কেমোর”। সঞ্চয় টা সাধারণের কষ্টে সৃষ্টে ঘাম ঝরানো, বাজার গরম রাখতে হলে তাদের বাঁচাও তাদের টানো। আশংকার মেঘ আতঙ্কেরও থাকবে গতি ঊর্ধ্বমুখী? কালো ছায়া মুখের ভাঁজে পতনটা যে দেয় রে উঁকি। যতই চলুক মেরামতি ফুটোটা যে অনেক বড়, কারিগরকুল ভয়েই অবশ কাঁপছে জবর থরো থরো। ইলিশ বৃত্তান্ত বলাই দে…

Read More

সুখোমণির ভুলে যাওয়া এবং – সমর চক্রবর্তী

সুখোমণির ভুলে যাওয়া এবং সমর চক্রবর্তী ভুলে যায় বলে সুখোমণির বেজায় ডর। নতুন শিক্ষাবর্ষে ভর্তি হওয়া সেই ভুলে যাওয়ার আশঙ্কায় তার কালো চোখ দুটো মেলে শুধু চেয়ে থাকে। সমূহ ঘটনাপুঞ্জে আকীর্ণ তার ভাবখানা দেখে মনে হবে, সর্বপ্রাণবাদী এই অনন্ত প্রকৃতি বুঝি তাকে মনে করিয়ে দেবে সব। আর এ সময়ে বিস্ফারিত দৃষ্টির দিকে সবাই তাকিয়ে আছে টের পেলে, তার চঞ্চল চোখদুটো আরো নম্র হয়ে ওঠে। সাথে সাথে তার উচ্ছ্বল হয়ে হেসে ওঠা দেখে মনে হবে যে, এই ভুলে যাওয়াটা তার…

Read More