প্রিয় পাঠক

# এটা MAY-JUNE 2024 সংখ্যা # পরবর্তী JULY-AUGUST 2024 সংখ্যা প্রকাশিত হবে জুলাই মাসের ১৫-২০ তারিখের মধ্যে # আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করার জন্য আপনাকে অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ # ঈশানকোণ নিয়মিত পড়ার জন্য আপনার প্রতি রইল আমাদের একান্ত অনুরোধ # ফেসবুকে আমাদের পেজ লাইক করুন, আমাদের ফলো করুন # আপনার লেখা আমাদের কাছে অমূল্য, লেখা পাঠান এই ঠিকানায়ঃ singhasada4@gmail.com # ঈশানকোণ-এর অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ Google Play Store থেকে ডাউনলোড করুন # পরবর্তী JULY-AUGUST 2024 সংখ্যা প্রকাশিত হবে জুলাই মাসের ১৫-২০ তারিখের মধ্যে।

গোবর্ধনের মহাদেব – সদানন্দ সিংহ

গোবর্ধনের মহাদেব     (ছোটোদের গল্প) সদানন্দ সিংহ আমাদের পাড়ায় একটা হিন্দি হাইয়ার সেকেণ্ডারি স্কুল আছে। তবে আমি পড়ি বাংলা স্কুলে। আমার বাবা আমাকে এবং আমার ভাইকে আমাদের পাড়ায় এক বাংলা প্রাইমারি স্কুলে ভর্তি করিয়ে দিয়েছিলেন। প্রাইমারি স্কুলের পর আমি ভর্তি হয়েছিলাম আরেক বাংলা হাইয়ার সেকেণ্ডারি স্কুলে। সে স্কুলটা আমাদের পাড়া থেকে দুই কিলোমিটার দূরে। আমরা হেঁটেই সেই স্কুলে যেতাম। সময় পেলেই আমরা পাড়ার হিন্দি স্কুলের ইটের প্রাচীর বেয়ে ওপরে উঠে যেতাম এবং প্রাচীরের মাথায় বসে স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের খেলা ছোটাছুটি…

Read More

Posted in হিজিবিজি Comments Off on গোবর্ধনের মহাদেব – সদানন্দ সিংহ
খাটো মেয়ে – সন্তোষ উৎসুক

খাটো মেয়ে       (ছোটোদের গল্প) সন্তোষ উৎসুক আন্নু ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী ছিল। তার বাবা একজন ব্যাংক অফিসার ছিলেন, তাই তার বদলি হয়ে যেত তিন বছর পর। এবার বাবা বিলাসপুরে বদলি হয়ে গেলেন। বিলাসপুর একটি ছোট শহর ছিল, কাকতালীয়ভাবে সে যে স্কুলে আগে পড়াশুনা করেছিল সেই স্কুলের একটি শাখাও ছিল না। আন্নু এবং তার বড় ভাই আভাস একটি নতুন স্কুলে ভর্তি হল। নতুন স্কুলের সিলেবাস আলাদা ছিল তাই নতুন সিলেবাস বুঝতে তাকে বেশি পরিশ্রম করতে হয়েছে। আন্নু সেশনের সময়…

Read More

হর্ষবর্ধনের কারবার – সদানন্দ সিংহ

হর্ষবর্ধনের কারবার    (ছোটোদের গল্প) সদানন্দ সিংহ গোবর্ধনের মাথায় এখন অনেক চিন্তা। অনেক প্রশ্ন। অনেক কাজ। কিন্তু কোন কিছুই হচ্ছে না। হর্ষবর্ধন তাকে নির্দেশ দিয়েছিলেন একজন কাঠের কারবারিকে নিয়ে আনতে। কারণ হর্ষবর্ধন আগরতলায় কাঠের কারবার শুরু করতে চেয়েছিলেন এবং সেই উদ্দেশ্যে আগরতলায় বাড়ি বানিয়েছিলেন। এই পরিকল্পনার কথা শুনে গোবর্ধন আগে মন্তব্য করেছিল, কোন চিন্তা নেই দাদা, আমি আছি। কথাটা তখন বলেছিল বটে, কিন্তু এখন সে হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছে কত ধানে কত চাল। দাদার নির্দেশ শুনে গোবর্ধন জিজ্ঞেস করেছিল,…

Read More

Posted in হিজিবিজি Comments Off on হর্ষবর্ধনের কারবার – সদানন্দ সিংহ
বিড়ালছানা – সন্তোষ উৎসুক

বিড়ালছানা        (ছোটোদের গল্প) সন্তোষ উৎসুক একদিন সকালে আন্নু তার বাড়ির ছাদে হাঁটছিল। গতকাল রাতে হালকা বৃষ্টি হয়েছে। এখন আবহাওয়া পরিষ্কার ছিল এবং সূর্য বেরিয়েছিল। হঠাৎ তার চোখ পড়ল ছাদের কোণে পড়ে থাকা শিশু পশুটির দিকে। শিশুটি নড়ছিল না। সে ভেবেছিল, বানরটি হয়তো মৃত শিশুটিকে সেখানে ফেলে দিয়েছে। সে ডাকতে লাগলো, আম্মু আম্মু, দেখ ওখানে কোনো পশুর বাচ্চা পড়ে আছে। মা নিচে রান্নাঘরে সবজি রান্না করছিলেন, তিনি উঠে এসে দুজনেই বারান্দার কোণে চলে গেলেন। একটি ছোট বিড়ালছানা…

Read More

লালাবাড়ির বোবাকান্না – সুদীপ ঘোষাল

লালাবাড়ির বোবাকান্না  (ছোটদের গল্প) সুদীপ ঘোষাল গোয়েন্দা সুমন ও সহকারী তোতন এবার পশ্চিমে পাড়ি দিলেন। সুমনদা তোতনকে বলেন, বেড়াতে যাওয়ার আগে পড়তে হয়, জানতে হয় অঞ্চলটির সম্বন্ধে কিছু কথা। তিনি বলতে থাকেন, “ছোটনাগপুর মালভূমি ভারতীয় উপদ্বীপীয় মালভূমির অন্তর্গত। প্রায় সমগ্র ঝাড়খণ্ড রাজ্য এবং পশ্চিমবঙ্গের পুরুলিয়া জেলার অংশবিশেষ নিয়ে এই মালভূমি গঠিত। কর্কটক্রান্তি রেখা ছোটনাগপুর মালভূমির প্রায় মধ্যভাগ দিয়ে বিস্তৃত হয়েছে। এই ছোটনাগপুর মালভূমি অঞ্চলে ভূপ্রকৃতি, জলবায়ু, নদনদী, কৃষিকাজ, খনিজ সম্পদ প্রভৃতি বিভিন্ন দিক দিয়ে নানা রূপ বৈশিষ্ট্য পরিলক্ষিত হয়।…

Read More

Posted in হিজিবিজি Comments Off on লালাবাড়ির বোবাকান্না – সুদীপ ঘোষাল
চিংড়িমামার শিল্প – সদানন্দ সিংহ

চিংড়িমামার শিল্প          (ছোটোদের গল্প) সদানন্দ সিংহ রবিবারের বিকেল। আমরা পাঁচজন মানে আমি, জগা, গোবরা, ফটকে এবং সুদেব চিংড়িমামার বাড়ির দিকে যাচ্ছি। চিংড়িমামা আমাদের নেমন্তন্ন করেছে; আমাদের সবাইকে নাকি ডবল ডিমের ওমলেট খাওয়াবে। সত্যি কথা বলতে কি খাবারের কথা হলেই আমাদের জিভে জল আসে। সবসময় আমাদের সবার মনে খাবারের প্রতি এক লোভ এসে পড়ে। তাই ডবল ডিমের ওমলেটের কথা শুনে আমাদের আর তর সইছিল না। অবশ্য ব্যাপারটা শেষপর্যন্ত সত্যি হবে কিনা আমাদের যথেষ্ট সন্দেহ ছিল। বলা…

Read More

Posted in হিজিবিজি Comments Off on চিংড়িমামার শিল্প – সদানন্দ সিংহ
নিনোর রবীন্দ্রনাথ – ডঃ নিতাই ভট্টাচার্য্য

নিনোর রবীন্দ্রনাথ     (ছোটোদের গল্প) ডঃ নিতাই ভট্টাচার্য্য খুব চিন্তায় পড়েছে নিনো। স্কুলে রবীন্দ্রজয়ন্তী পালন হবে। আর কয় দিন মাত্র বাকি। নিনো এখনও তৈরিই হতে পারেনি। কিভাবে কি বলবে বুঝে উঠতে পারছে না কিছুতেই। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর সম্পর্কে দু কথা যে কিভাবে বলে! ভাবনায় অধীর হয়েছে নিনো। ক্লাস-টু থেকে বক্তব্য রাখতে হবে নিনোকে। অন্য ক্লাসগুলি থেকেও অনেকে বলবে কবিগুরু সম্পর্কে। কেউ কেউ গান গাইবে। রবীন্দ্রনৃত্য আছে। ছোট ছোট দুটি নাটকও হবে। জমজমাট অনুষ্ঠানের আয়োজন চলছে স্কুলে। রিহার্সাল চলছে রোজ। সমস্যা…

Read More

Posted in হিজিবিজি Comments Off on নিনোর রবীন্দ্রনাথ – ডঃ নিতাই ভট্টাচার্য্য
ভালো আচরণের পুরস্কার – সন্তোষ উৎসুক

ভালো আচরণের পুরস্কার     (ছোটোদের গল্প) সন্তোষ উৎসুক শেকু, অন্নু, চারু, মুদিত আর টিঙ্গু খেলছিল। গতকাল তার পরীক্ষা শেষ হয়েছে এবং তারা ফ্রি ছিল। কেউ তাড়াতাড়ি বাড়ি যেতে চায়নি। সবাই প্রথমে একটি খেলা খেলত কিন্তু শীঘ্রই বিরক্ত হয়ে অন্য খেলা শুরু করত। লুকোচুরি খেলার সময় সবাইকে লুকিয়ে থাকতে হয়েছিল এবং টিঙ্গুকে তাদের খুঁজে বের করতে হয়েছিল। বাঁশি বাজাতেই সবাই পালিয়ে গেল আর টিঙ্গু চোখ বন্ধ করে দাঁড়িয়ে রইল। সে ভাবল সবাই নিশ্চয়ই নিজেকে আড়াল করে জোরে জোরে বলবে, ‘এবার…

Read More

Posted in হিজিবিজি Comments Off on ভালো আচরণের পুরস্কার – সন্তোষ উৎসুক
গোবর্ধনের ট্রেনিং – সদানন্দ সিংহ

গোবর্ধনের ট্রেনিং     (ছোটদের গল্প) সদানন্দ সিংহ মা বলেছিল, প্রফুল্ল দোকান থেকে আড়াইশ গ্রাম মুড়ি কিনে আনতে। আমি সেদিকেই যাচ্ছিলাম। এই দোকানের মালিকের নাম প্রফুল্ল। সবাই এই দোকানকে প্রফুল্ল দোকান বলেই ডাকে। আমাদের এখানে আরো কিছু দোকান আছে। যেমন বুড়া দোকান, নতুন দোকান, অবিনাশ দোকান, নারু দোকান ইত্যাদি। এই নামগুলি আসলে লোকজনদের দেওয়া নাম। দোকানে যাবার পথে দেখলাম দুটো ক্র্যাচ নিয়ে গোবর্ধনদা রাস্তায় এক পায়ের ওপর ভর করে কষ্ট করে হেঁটে চলেছেন। দেখে আমার ভারী কষ্ট হল। আহা, উনি…

Read More

Posted in হিজিবিজি Comments Off on গোবর্ধনের ট্রেনিং – সদানন্দ সিংহ
গোবর্ধনের পরীক্ষা – সদানন্দ সিংহ

গোবর্ধনের পরীক্ষা              (ছোটোদের গল্প) সদানন্দ সিংহ আমাদের এলাকায় একটা হিন্দি স্কুল আছে। বেশ বড় স্কুল। হাইয়ার সেকেন্ডারি স্কুল। সেই স্কুলের সামনে একটা বিরাট মাঠ আছে। আর সে মাঠে ঢুকবার মুখে একটা বড় পুকুর আছে। সে পুকুরে আছে শান বাঁধানো ঘাট। আমি পড়ি বাংলা স্কুলে। স্কুল ছুটি হলে আমি বাড়ি ফিরে কিছু খেয়ে সেই পুকুরের শান বাঁধানো ঘাটে এসে বসি প্রায়সময়ই। বসে আমি পুকুরের জলে ফড়িঙের খেলা দেখি। আজও যাচ্ছিলাম। সেখানে গিয়ে দেখি, গোবর্ধনদা…

Read More

Posted in হিজিবিজি Comments Off on গোবর্ধনের পরীক্ষা – সদানন্দ সিংহ