গোবর্ধনের মহাদেব – সদানন্দ সিংহ

গোবর্ধনের মহাদেব     (ছোটোদের গল্প)

সদানন্দ সিংহ

আমাদের পাড়ায় একটা হিন্দি হাইয়ার সেকেণ্ডারি স্কুল আছে। তবে আমি পড়ি বাংলা স্কুলে। আমার বাবা আমাকে এবং আমার ভাইকে আমাদের পাড়ায় এক বাংলা প্রাইমারি স্কুলে ভর্তি করিয়ে দিয়েছিলেন। প্রাইমারি স্কুলের পর আমি ভর্তি হয়েছিলাম আরেক বাংলা হাইয়ার সেকেণ্ডারি স্কুলে। সে স্কুলটা আমাদের পাড়া থেকে দুই কিলোমিটার দূরে। আমরা হেঁটেই সেই স্কুলে যেতাম।
সময় পেলেই আমরা পাড়ার হিন্দি স্কুলের ইটের প্রাচীর বেয়ে ওপরে উঠে যেতাম এবং প্রাচীরের মাথায় বসে স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের খেলা ছোটাছুটি সব লক্ষ করতাম।

আজও স্কুল থেকে ফিরে আমি একা প্রাচীরের মাথায় বসে হিন্দি স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা দেখছিলাম। এদিন আমাদের স্কুল তাড়াতাড়ি ছুটি হয়ে গেছিল। হিন্দি স্কুলের সামনেই মাঠ। দেখলাম, সে মাঠেই স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা হচ্ছে। স্কুলের বার্ষিক প্রতিযোগিতা দর্শকদের জন্য উন্মুক্ত। পাড়ার অনেককেই দেখলাম ক্রীড়া প্রতিযোগিতা মাঠের কাছে গিয়ে দেখছে। ভাবলাম আমিও মাঠে গিয়ে দেখব। আমি তাড়াতাড়ি প্রাচীর থেকে রাস্তায় নেমে এসে মাঠের উদ্দেশ্যে প্রায় দৌড়োচ্ছিলাম। পেছন থেকে ঠিক তখুনি গোবর্ধনদা’র ডাক শুনতে পেলাম, এ্যাই হাবু। কোথায় দৌড়োচ্ছ ?
গোবর্ধনদাকে দেখে বললাম, হিন্দি স্কুলের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা দেখতে যাচ্ছি।
— দাঁড়াও। আমিও যাবো।
— হ্যাঁ চলুন। আমি দৌড় থামিয়ে বললাম। তারপর গোবর্ধনদার সঙ্গে এগোতে থাকলাম।

মাঠে পৌঁছাবার পর দেখলাম মাঠের এক জায়গায় ট্রিপাল টাঙানো। সেখান বসার জন্যে অনেক স্টিলের চেয়ার রয়েছে। মাঠের ভেতরে তখন এক দৌড় প্রতিযোগিতা চলছে। মাঠের আরেক কোণে চলছে মেয়েদের লংজাম্প প্রতিযোগিতা।
গোবর্ধনদা বললেন, চলো, চেয়ারে বসে দেখি।
গোবর্ধনদা চেয়ারে গিয়ে বসলেন। আমি বসিনি। মেয়েদের লংজাম্প প্রতিযোগিতা দেখার জন্যে মাঠের কোণে চলে গেলাম।
মাইকে হিন্দিতে কেউ কমেন্টারি করে চলেছে।

বেশ কিছুক্ষণ ধরে লংজাম্প দেখে আমি আবার গোবর্ধনদার কাছে যাবার জন্যে এগোতে লাগলাম। কিছুটা যেতেই দূর থেকে দেখলাম গোবর্ধনদা মাটিতে সাষ্টাঙ্গে শুয়ে মহাদেবকে প্রণাম করে আছেন। সামনে এসে আমি বুঝতে দেখলাম মহাদেব সেজে গোবর্ধনদার সামনে কেউ দাঁড়িয়ে আছে। গোবর্ধনদা বলছেন, প্রভু, আমাকে একটু আলো দাও। আমার জীবনটাকে উন্নতি করে দাও শুধু। ব্যবসার পথ দেখাও। আমি একশ গরীব-দুঃখীকে ভোজন করাবো।
দেখলাম মহাদেব এবং গোবর্ধনদাকে ঘিরে বেশ ভিড় জমে গেছে। সবাই হাসাহাসি করছে।
মহাদেব বলল, বড়ে দাদা, আভি তুম ঘর যাও। সব কুছ হো যায়েগা।
মহাদেবের মুখ থেকে হিন্দি কথা শুনে গোবর্ধনদা মুখ তুলে মহাদেবের দিকে চেয়ে রইলেন যেন একটু অবাক হলেন, মনে হল তিনি যেন মহাদেবের মুখ থেকে বাংলাভাষা আশা করছিলেন।
আমি কাছে গিয়ে বললাম, গোবর্ধনদা উঠো। এটা গো এ্যাজ ইউ লাইক খেলার মহাদেব। এই খেলায় যে কেউ যা খুশি সাজতে পারে।
গোবর্ধনদা তাড়াতাড়ি উঠে দাঁড়ালেন। বললেন, গত রাতের স্বপ্নে আমি এই মহাদেবকেই দেখেছিলাম মনে হয়েছিল।

লক্ষ করলাম, চারিদিকে সবাই হাসাহাসি করছে। তা দেখে আমি একটু লজ্জাও পেলাম গোবর্ধনদার জন্যে। আমি চলে যেতে যেতে বলাম, আমি চলে যাচ্ছি। গোবর্ধনদা পেছন থেকে বললেন, দাঁড়াও, আমাকে ফেলে যেও না। আমিও যাব।
আমি কিন্তু দাঁড়ালাম না, প্রায় দৌড়েই চলে যেতে থাকি। দেখলাম, গোবর্ধনদাও আমার পিছু পিছু ছুটে আসছেন।