প্রিয় পাঠক

# এটা JULY-AUG 2022 সংখ্যা # আমাদের ওয়্বেবসাইট ভিজিট করার জন্য আপনাকে অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ # ঈশানকোণ নিয়মিত পড়ার জন্য আপনার প্রতি রইল আমাদের একান্ত অনুরোধ # ফেসবুকে আমাদের পেজ লাইক করুন # আপনার লেখা আমাদের কাছে অমূল্য, লেখা পাঠান এই ঠিকানায়ঃ singhasada4@gmail.com # ঈশানকোণ-এর অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ Google Play Store-এ দেওয়া হচ্ছে # পরবর্তী সংখ্যা হচ্ছে SEPT-OCT 2022 সংখ্যা।

সদানন্দ সিংহের ছোটদের গল্প

ওয়ার্ল্ড ফেমাসের গপ্পো       (ছোটদের গল্প) সদানন্দ সিংহ চিংড়িমামা আর ফড়িংমামা দু’জনকে আজ একসঙ্গে দেখে খুবই অবাক হয়ে গেলাম। অবাক হবো নাইবা কেন ? যে লোকের কানে ফড়িংমামার কথা ঢুকলেই রাগে ফেটে পড়ত, সেই তিনিই কিনা আজ ফড়িংমামার সঙ্গে বন্ধুত্ব বাগিয়েছে! সত্যিই নিজের চোখকেই বিশ্বাস করতে পারছিলাম না। সন্ধ্যে হয়ে আসছিল। অবিশ্বাসী চোখ নিয়েই আমি হাবুরাম আর আমার ছোটভাই সুদেব বাড়ি ফিরে এলাম। চিংড়িমামা আর ফড়িংমামাদের ভালো নামও আছে। তবুও আমরা ওই নামেই ডাকি। কারণ তাঁদের চেহেরা এবং…

Read More

ছুতো – ব্রতীন বসু

ছুতো       (অনুগল্প) ব্রতীন বসু পাড়ার দীপকদা, বছর পঞ্চাশেক বয়স, খেলাধুলো পাগল। গ্রীষ্মের প্রথমে এক সাথে সাঁতার ক্লাবে ভর্তি হলাম। দীপকদা ফর্ম তুলতে যাবার সময় আমাকে ফোন করল, কিরে সাঁতার কাটবি তো এই সেশনে? – হ্যাঁ, ইচ্ছে তো আছে। – আমি ফর্ম তুলে দেব, তুই ফিল আপ করে টাকা জমা ফিয়ে দিস স্টেট ব্যাঙ্কে। – দারুণ হবে। রোজ সন্ধের স্লটে অফিসের পর দেখা হতে লাগল। হপ্তা দুয়েক বাদ থেকেই দীপকদা অনিয়মিত আসা শুরু করল। এক দিন আসে তো…

Read More

দুর্জয়ের মানুষরা – সদানন্দ সিংহ

দুর্জয়ের মানুষরা      (অনুগল্প) সদানন্দ সিংহ দুর্জয় বসেছিল বাসের প্রায় পেছনের দিকে দরজার কাছাকাছি এক সীটে। দরজার কাছাকাছি বসলে একটা সুবিধা আছে। অফিস টাইমের গাদাগাদি ভিড়ের মাঝেও টুক করে নেমে পড়া যায়। দুর্জয়ের স্টপেজ আসতে আরো প্রায় মিনিট দশেক বাকি। সে তাই জানালা দিয়ে বাইরের দিকে তাকিয়ে ছিল। এইসময় তার মুখের সামনে বাড়ানো দুশো টাকার এক নোট দেখে সে। এইসঙ্গে সে এও শুনতে পায়, “ধরুন তো এটা।” যে লোকটি নোটটি বাড়িয়ে ধরে কথাগুলি বলেছিল তাকে দেখেই দুর্জয় নোটটি…

Read More

জরা শবরের কথা – ডঃ নিতাই ভট্টাচার্য্য

জরা শবরের কথা          (ছোটোগল্প) ডঃ নিতাই ভট্টাচার্য্য             শালা হারামির বাচ্ছা, বেইমান, ভাগ……কালো বিড়ালটাকে রাগে দুরে ঠেলে দেয় জরা। নিরাপদ দুরত্ব থেকে বিড়ালটা জুল জুল করে চেয়ে থাকে জরার দিকে। মাপতে চায় জরার মেজাজের ঝাঁঝ। কিছুটা হতচকিতও, এমন অভ্যর্থনা আশা করেনি যেনো। খানিক আগেই একটা বড়ো মেঠো ইঁদুর ধরে এনে জরার থেকে বেশ কিছুটা দুরে বসে আয়েস করে খাচ্ছিলো। তাই দেখে শুকনো জিভে জল এসেছিল জরার। মেঠো ইঁদুর পুড়িয়ে খায়নি কতো…

Read More

শোভনানন্দ – সুদীপ ঘোষাল

শোভনানন্দ        (অনুগল্প) সুদীপ ঘোষাল শোভনকাকা ফাল্গুনে হোলিকার কুশপুত্তলিকায় আগুন ধরিয়ে কি নাচ নাচতেন। নাচতে নাচতেই আমরাও সমস্বরে বলতাম, ধূ ধূ নেড়া পোড়া, হোলিকার দেহ পোড়া। শোভনকাকা বলতেন, অশুভ শক্তিকে পুড়িয়ে শুভ শক্তির উন্মেষ। পরের দিনে রং আর আবিরে ভরিয়ে দিতেন আকাশের নরম গা। বাতাসের অদৃশ্য গায়ে আবিরের আনাগোনা। সে এক অনির্বচনীয় আনন্দের প্রকাশে রাধাকৃষ্ণের প্রতি শ্রদ্ধা প্রকাশের আকুতি ছিল তাঁর মনে। আশ্বিনের আকাশে বাতাসে বেলুন গ্রামের শোভনকাকা অর্থাৎ শোভন পাঠকের রঙের খেলা দেখতাম। শিল্পী একমাটি, দু’মাটি…

Read More

নির্বাণ – সদানন্দ সিংহ

নির্বাণ         (ছোটোগল্প)     সদানন্দ সিংহ (এক) জীবনের অর্ধেক পেরিয়ে আসার পর নির্বাণ নামের একজন পুরুষ মানুষ একদিন সন্ধ্যেয় ধুলিধূসরিত পৃথিবীর এক সন্ধিক্ষণে পদ্মাসনে বসে আকাশের দিকে তাকিয়ে সমাধিস্থ হবার চেষ্টা করতে গিয়ে টের পায় আজানুলম্বিত বাহুরই আরেক নাম যৌবন যাকে গৌতম বুদ্ধ অবলীলায় ত্যাগ করে গৃহত্যাগী হয়েছিলেন। নির্বাণ আরো বুঝতে পারে যে সে কোনোদিনই গৌতম বুদ্ধের পথে অনুসরণ করার মতো লোক হবার যোগ্যতা অর্জন করতে পারবে না। সে আসলে একজন অতি সাধারণ এক গৃহাকাঙ্ক্ষী লোক এবং…

Read More

নাইটআউট – বৈদূর্য্য সরকার

নাইটআউট            (ছোটোগল্প) বৈদূর্য্য সরকার – ঠাকুর বলছি… দীর্ঘদিন বাদে ছেলেবেলার কোনও বন্ধুর ফোন পেলে সবাই একটু অবাক হলেও খুশি হয়। – কতদিন বাদে তোর সাথে কথা হচ্ছে ভাই… সৌম্য বলল। তখন সন্ধের ঝোঁক, কাজকর্ম তেমন নেই। নিজের চেম্বারে বসে আগামীকালের হিয়ারিংগুলোর কাগজপত্র দেখছিল সৌম্য। ওকালতি করছে ছ’বছর। – কীরে বাবাই…এতদিন কোথায় ছিলি? ফেসবুকেও দেখি না তোকে… হোঁৎকার গলায় আবাক হওয়ার ভঙ্গি। ও একটা শপিং মলে কাজ করে। – হ্যালো হ্যালো… লাইনটা কেটে যাচ্ছে… মিলন…

Read More

করোনায় কালো এক মধুর রাত – অন্তিম রায়

করোনায় কালো এক মধুর রাত        (ছোটোগল্প) অন্তিম রায় “হাই, টীম, হাউ আর ইউ? আই’ম নট ওয়েল”। সন্ধ্যার দিকে একটা ম্যাসেজ এল। আমি সাথে সাথে একটু আশ্চর্য হয়ে ওকে রিপ্লাই করলাম, হোয়াই ইউ আর নট ওয়েল, হট হ্যাপেন্ড? ও উত্তর করল, আমি সাস্পেক্ট করছি, মনে হয় আমি করোনায় আক্রান্ত। আমি একটু ব্যস্ত হয়ে বললাম, তুমি কেন তা মনে করছ? ⸺ সিম্পটম তো তাই বলে। ⸺ সাধারন ফ্লু’র সিম্পটমও তো সেইম? তোমার কি পরীক্ষা হয়েছে? ⸺ না। ⸺…

Read More

মাষ্টারমশাই – সাধন কুমার পাত্র

মাষ্টারমশাই  (ছোটোগল্প) সাধন কুমার পাত্র মাষ্টার! তুমি কি ডাক্তার ? ছেলের এমন প্রশ্নে কিছুটা হকচকিয়ে গেলেন সৌমেনবাবু। ক্লাস ফাইভে ওদের প্রথম দিন। সবার সাথে ভালো করে পরিচয়, এখনো হয়ে ওঠেনি। কিন্তু সকলের চোখমুখ যেন উত্তর পেতে চাইছে। হুম্, আমি মাষ্টার আবার ডাক্তারও। শুনে হি হি করে উঠল সবাই। কিন্তু সমরেশ ছেলেটি চূপ হয়ে বসে পড়ল। ওর কি আরো কিছু প্রশ্ন আছে?  স্যার বললেন-তুমি কি আরো কিছু বলবে? না, স্যার। ভর্তির সময় স্কুল থেকে যে ডাইরি পেয়েছি, ওখানেই দেখেছি তুমি…

Read More