আলোচনা

ঈশানকোণ একটি সাহিত্যের ওয়েবজিন শরৎ পর্যায় অগাস্ট-সেপ্টেম্বর ২০১৭ ইং 

বই পত্রপত্রিকা

কবিতার বই
দিগন্তে মেলেছি ডানা
কবি সন্‌জিৎ বণিক, প্রথম প্রকাশ- বইমেলা ২০১৭, দাম ১০০ টাকা
প্রকাশকঃ তুলসী পাবলিশিং হাউস, কৃষ্ণনগর, আগরতলা, ত্রিপুরা, পিন-৭৯৯০০১।
কবি সন্‌জিৎ বণিককে বহুদিন ধরে চিনি। চার দশক ধরে তিনি কবিতা লিখছেন। শাব্দিক নামে একটি লিটিল ম্যাগ প্রকাশ করে চলেছেন বহুবছর ধরে। দিগন্তে মেলেছি ডানা – এই শব্দগুলি শুনলেই যেন একটা রোমান্টিকতার ঘোড়া দৌড়ে এসে সামনে দাঁড়ায়। কিন্তু ভেতরের কবিতাগুলি যখন পড়া আরম্ভ করি তখন আবার ঘোড়াটা কোথায় জানি হারিয়ে যায়। মোট ৫৬টি কবিতা এ গ্রন্থে সংকলিত হয়েছে। তখন “একশ আট কথার / পথ বেয়ে যে নারী পর্বতারোহনে যায় / তার ভবিষ্যৎ বটবৃক্ষের নববধূর মতোই” হয়, শেষে “ভালবাসার মজ্জাতেই মানুষ ভগবান / আকাশ বাতাস চন্দ্র সূর্য সত্যি মহীয়ান” হয়। তারপর “ভালবাসা সম্মান ও সৃষ্টির রহস্য নিয়ে / জগৎ সন্দর থেকে সুন্দরতর করা দিনরাত” ব্যস্ত থাকেন আর কলমে হাত রেখে সব কিছুকেই ঝরণা কলমে পরিণত করেন। নক্ষত্রেরা চারিদিকে জ্বলে, এই ভাবনায় অন্তরাত্মা সচল হয়। মাঝে মাঝে আত্মকেন্দ্রিকতায় নিজেকে রূঢ় মনে হয়। কিন্তু এক সৃষ্টিকর্তার ওপর আস্থা রাখেন। শব্দকে চিবিয়ে হজম কিংবা বদহজম হলেও কবি তাই নিয়েই বাঁচতে চান। সমস্ত রকম প্রতিকূলতার মাঝে গাছের মতো অবিচল থাকেন। কবির সংশয় হয় – সব গোলাপই রক্তে রাঙা কিনা। দুঃখের কারণগুলিকে কিন্তু লুকিয়ে ফেলতে চান। কবি বিশ্বাস করেন মানুষের অন্তরালেই তার ভবিতব্য ঘুমিয়ে থাকে। শেষে মানুষেরই বোধবুদ্ধির মর্যাদায় রঙিন হন। কবিতা লিখতে গিয়ে জটিলতায় যান না কবি, সহজ ভাষা পছন্দ করেন।

লিটিল ম্যাগ
এবং পৃথ্বীশ  (ত্রয়োদশ বর্ষ, আশ্বিন ১৪২৩ সংখ্যা)
সম্পাদিকাঃ পুষ্প সাঁতরা
কার্যালয়ঃ আটবেড়িয়া, হাঁড়িঝামা, পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম বঙ্গ, পিন-৭২১১৫২
‘এবং পৃথ্বীশ’ হল ছোটবড় সবার পত্রিকা। এগারোটি মূল্যবান প্রবন্ধে ভরপুর। তার মধ্যে দশটি প্রবন্ধ নারীদের নিয়েই লেখা, যেমন – স্ত্রী শিক্ষা ও নারী জাগরণ একটি অনুভাবনা (অসিত দত্ত), সঙ্গীতের মুর্চ্ছনায় মহিলা গীতিকার ও সুরকার (ডা সুদর্শন রায়), সুচিত্রা মিত্রঃ জীবনের আরেক নাম লড়াই (ড গীতিকা পণ্ডা), কাব্যভূমিতে কবি চন্দ্রাবতী (পুষ্প সাঁতরা), বাংলা থিয়েটারে এক অনন্য প্রতিভাঃ তৃপ্তি মিত্র (শ্যামল দত্ত), গিরিশপ্রিয়া তিনকড়ি কিংবদন্তি নারী (তৈমুর খান), অমৃতা দেবী পরিবেশ আন্দোলনের একটি নাম (প্রাণ্নাথ শেঠ), ধন্য তুমি তুলিকা (চিত্তরঞ্জন রায়), সার্ধশতবর্ষে কবি কামিনী রায় ( ড অনিমেষ চট্টোপাধ্যায়), রক্ষণশীলতার বেড়া ভেঙে বিদ্যুৎলতার উত্তরণ ( ভাস্করব্রত পতি)। কবিতা লিখেছেন মঞ্জীর বাগ, লক্ষ্মীকান্ত মণ্ডল, নূতন, দূরন্ত বিজলী, সঙ্গীত সাঁতরা, শ্রী দেবাশিস কুইলা, কমলেশ নন্দ। গল্প ও অনুগল্প লিখেছেন আমিয় আদক, শভঙ্কর দাস, মঙ্গলাপ্রসাদ মাইতি, দীপক জানা, নারায়ণ সামাট। গল্পলেখকদের কয়েকজনের নাম দেখে মনে হল যেন ফেসবুকের নাম। তের বছর ধরে একটা লিটিল ম্যাগাজিন চালানো কেমন কষ্টকর ব্যাপার যাঁরা লিটিল ম্যাগ প্রকাশ করেন তাঁরাই জানেন। ভবিষ্যতেও যাতে এগিয়ে চলে সেজন্যে শভেচ্ছা রইলো। 

                                                                                                                                   HOME

এই লেখাটা শেয়ার করুন